রাসেল-ব্রাভোদের পাশে নাম লিখিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়লেন সাকিব

প্রথম বাংলাদেশী ও বিশ্বের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকে'টে পাঁচ হাজার রানের রেকর্ড গড়লেন টাইগার সুপারস্টার সাকিব আল হাসান। সেই সাথে বিশ্বের দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ৩৫০ উইকেট ও ৫ হাজার রানের রেকর্ডো গড়লেন সাকিব।

জুয়াড়ির তথ্য গো'পন করায়, ইন্টরন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) কর্তৃক এক বছর নিষিদ্ধ ছিলেন সাকিব। গেল ২৯ অক্টোবর তার নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়। ফলে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপের ড্রাফটে নাম উঠে সাকিবের। সেখান থেকে সাকিবকে দলে ভেড়ায় খুলনা।

সাকিবের নিষেধাজ্ঞা শেষ হবার পর বাংলাদেশের কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ ছিলো না। ফলে ক্রিকেট মাঠে ফেরার জন্য আরও কিছুদিন তাকে অ'পেক্ষা করতে হয়েছে।রেকর্ড থেকে মাত্র ৩০ রান দুরে থেকে বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপে খেলতে নামেন সাকিব। তৃতীয় ম্যাচে এসে ছুঁলেন মাইলফলক। রেকর্ড গড়তে চট্রগ্রামের বিপক্ষে সাকিবকে আজ করতে হতো ৩ রান।

আর ৩ রান করার পর রেকর্ড গড়ে ফিরে যান সাকিব। এতেই স্বীকৃত টি-২০’তে বাংলাদেশী হিসেবে প্রথম এবং আন্দ্রে রাসেল ও ডোয়াইন ব্রাভোর পর তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ৫ হাজার রান ও ৩০০ উইকেট অর্জনের কী'র্তি গড়লেন সাকিব। তবে ৩৫০ উইকে'টের এই রেকর্ডে আছেন কেবল সাকিব ও ব্রাভো।

৩১১ ম্যাচে সাকিব করেছেন ৫,০০০ রান। গড় ২১। রয়েছে ১৯ ফিফটি। সর্বোচ্চ ইনিংস ৮৬* রানের। সাকিব এই রান করেছেন ঘরোয়া ক্রিকেট ও বিপিএল, আইপিএল, বিগ ব্যাশ, সিপিএল, পিএসএলের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজি আসরে খেলে।

বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এ ফরম্যাটে রানের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে মুশফিকুর রহিম। আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টিতে অবশ্য সবার চেয়ে এগিয়ে তামিম ইকবাল। বাঁহাতি ওপেনার টাইগার জার্সিতে ৭৪ ম্যাচে তুলেছেন ১,৭০১ রান। আর সাকিব ৭৬ ম্যাচে করেছেন ১,৫৬৭ রান। তৃতীয় অবস্থানে বর্তমান টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৭৯ ইনিংসে তার সংগ্রহ ১,৪৭৫ রান।

আইসিসির নিষেধাজ্ঞার ধাক্কা না এলে সাকিব টি-টুয়েন্টিতে ৫ হাজার রান পূর্ণ করে ফেলতে পারতেন আরও আগেই। খেলতে পারতেন সিপিএল ও আইপিএলে। সেটি না হওয়ায় তাকে অ'পেক্ষা করতে হয়েছে আরও কিছুদিন।

Back to top button