মে'য়ের বিয়ে আর ছে'লের পড়ালেখা করাতে গিয়ে নিঃস্ব বাবার করুণ মৃ'ত্যু গল্প!

রংপুর সদর উপজে'লার পালিচড়া বাজার থেকে রাজু মিয়া (৫৪) নামে এক ব্যক্তির ঝুলন্ত ম'রদেহ উ'দ্ধার করেছে পু'লিশ। শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজে'লার সদ্যপুষ্করিনী ইউনিয়নের পালিচড়া বাজারের পাশে

একটি নির্মাণাধীন ভবনের আম গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় তার ম'রদেহ উ'দ্ধার করা হয়।নি'হত রাজু মিয়া ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমানের ভাড়াটিয়া ছিলেন। রাজু মিয়ার গ্রামের বাড়ি রংপুরের মিঠাপুকুর উপজে'লার পাইকার হাট এলাকায়।

নি'হত রাজুর খালাতো ভাই সাগর মিয়া জানান, এক ছে'লে, এক মেয়ে ও স্ত্রী'কে নিয়ে সুখের সংসার ছিল রাজু মিয়ার। মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। ছে'লে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্সে পড়াশোনা করছেন। ছে'লের লেখাপড়া ও মেয়ের বিয়ে দিতে গিয়ে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েন রাজু।

একপর্যায়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তার দূরত্ব তৈরি হয়। স্ত্রী' তার বাবার বাড়ি পীরগাছা উপজে'লার কদমতলীতে চলে যান। এদিকে সন্তানরাও তার খোঁজ খবর নিচ্ছিল না। এ অবস্থায় চার মাস যাবৎ সদ্যপুস্করিনী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমানের একটি রুম ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন রাজু। তার কাছেই খেতেন এবং রুম ভাড়ার টাকা রাজুর বোনেরা পাঠাতেন।

বাসার মালিক মতিয়ার রহমান জানান, চার মাস আগে তিনি একটি রুম ভাড়া নেন। প্রতি মাসে সাতশ টাকা করে ভাড়া দিতেন। মানুষ হিসেবে সহ'জ সরল ছিলেন রাজু। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তেন। শুক্রবার ফজরের নামাজ পড়তে ম'সজিদেও গিয়েছিলেন। সকালে প্রতিবেশীদের মাধ্যমে তার মৃ'ত্যুর বিষয়টি জানতে পারি।

সদর থা'না পু'লিশের ভা'রপ্রাপ্ত কর্মক'র্তা (ওসি) মোস্তাফিজার রহমান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ম'রদেহ পাওয়া গেছে। মৃ'ত্যুর প্রকৃত কারণ উদঘাটনে ময়নাত'দন্তের জন্য ম'রদেহ ম'র্গে পাঠানো হবে।

Back to top button