করো'না নিয়ে দারুণ সুখবর দিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য প্রধান

মহামা'রি করো'নাভাই'রাসে স্তব্ধ গোটা বিশ্ব। কী'ভাবে এ ভাই'রাস থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে তা নিয়ে মা'থার ঘাম পায়ে ফেলছেন বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা। অবশেষে আশার কথা শোনালেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান।

শুক্রবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে হু চিফ তেদ্রস আধানম ঘেব্রেসা'স বলেন, দু’বছরের মধ্যে করো'না অ'তিমা'রি থেকে মুক্তি পাবে বিশ্ব। বিশ্ব থেকে স্প্যানিশ ফ্লু বিদায় নিতে যা সময় লেগেছিল, তার থেকেও কম সময়ে করো'নাভাই'রাস বিদায় নেবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হেডকোয়ার্টারে বসে তিনি আরও বলেন, বর্তমান গ্লোবালাইজেশনের একটা খা'রাপ দিক রয়েছে, যার জন্য অ'তিদ্রুত বিদ্যুৎ গতিতে করো'নাভাই'রাস সারা পৃথিবীজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। আবার বর্তমানে একটা ভালো দিকও রয়েছে আর তা হলো উন্নত প্রযু'ক্তি।

তিনি বলেন, ভ্যাকসিনসহ একাধিক উপায়ে ব্যবহার করে স্প্যানিশ ফ্লু এর থেকেও কম সময়ের মধ্যে আম'রা করো'না থেকে মুক্তি পাব। করো'নাভাই'রাসে আ'ক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত বিশ্বে মৃ'ত্যু হয়েছে ৮ লাখেরও বেশি মানুষের। বিশ্বজুড়ে আ'ক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৩০ লাখ মানুষ। কিন্তু হিসাব বলছে, আধুনিক ইতিহাসে সবচেয়ে মা'রাত্মক অ'তিমা'রি হলো স্প্যানিশ ফ্লু। স্পানিশ ফ্লু-তে মৃ'ত্যু হয়েছিল ৫০ মিলিয়ন বা পাঁচ কোটি মানুষের। আর বিশ্বজুড়ে আ'ক্রান্ত হয়েছিল ৫০০ মিলিয়ন মানুষ।

আ'মেরিকাতে প্রথম ধ'রা পড়েছিল এ ভাই'রাস। পরে তা ইউরোপে ছড়িয়ে পড়ে। এই মহামা'রি তিনটি ওয়েভ এসেছিল, তার মধ্যে সব থেকে মা'রাত্মক ছিল সেকেন্ড ওয়েভ, যার শুরু ১৯১৮ সালের দ্বিতীয়ার্ধে।

পরে সেই ভাই'রাস একটা সাধারণ ফ্লু এর আকার নেয়, সিজনাল বা ঋতুভিত্তিক হয়ে পড়ে। হু-এর এক ক'র্তার কথায় এভাবেই অনেক মহামা'রি ভাই'রাস পরবর্তীকালে ঋতুভিত্তিক ভাই'রাসে পরিণত হয়।

Back to top button