এই ধরনের নারীকে ভীষণ ঘৃ'ণা করি

সম্ভব’ত বিয়ে ভা’ঙার আগে এই প্রথম সোশ্যা’ল মিডিয়ায় এ ভাবে বিত’র্কে জড়িয়ে পড়ছেন শ্রাব’ন্তী। রা’জীব বিশ্বা’সের স’ময় সো’শ্যাল মি’ডিয়া আসেনি। কৃষ্ণ ভি রা’জের সঙ্গে বি’চ্ছেদের সময়’ কোনও সাড়া’শব্দ ছিল না কারও মুখেই।

এ’নেই ব্যতি’ক্রম রোশ’ন সিংহ। কোন ছে’ড়ে কথা বল’ছেন না তিনি। সোশ্যা’ল মি’ডিয়ায় শ্রাবন্তীর প্রতি’টি পদ’ক্ষেপ নজরে রাখছেন তিনি। দিচ্ছেন পা’ল্টা জ’বাবও। আ’বারো কি নিয়ে রেশারেশি শ্রাব’ন্তী-রোশা’নের মধ্যে। অ’তি সম্প্রতি শ্রা’বন্তী নি’জের মা-বা’বার সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করেন।

ক্যাপ’শনে বলেন, তাঁকে সব অবস্থা’য় সম’র্থন জানিয়ে এসেছেন বাবা-মা। ছবিতে দেখা যাচ্ছে সিঁথিতে সিঁদুর জ্বলজ্বল করছে। এই ছবি দেখার পর থেকে’ই ভক্ত’রা মে’তেছেন নতুন জল্পনায়। ভোলেননি রোশন। শ্রাবন্তীর এই পোস্টের পরেই আত্ম’জা বন্দ্যো’পাধ্যা’য়ের উক্তি ধার করে পাল্টা ‘পোস্ট করেছেন।

কী'’ বলা হয়েছে সেখানে? ‘সুখী দাম্প’ত্যের চাবিকাঠি পারস্পরিক বিশ্বা’সের মধ্যে লুকিয়ে। বিয়ের গুরুত্ব বোঝা’তে সিঁ’দুর ভী’ষণ দু’র্বল চিহ্ন।’ রোশন এই উক্তির সম’র্থনে অর্থপূর্ণ ক্যাপশ’নও লি’খেছেন, ‘আমি পুরোপুরি সহমত।

স্বামী বা প্রা’ক্ত’নের আ’পত্তি সত্ত্বেও কিছু নারী তার নামে জো’র করে সিঁদুর পরেন। এই ধরনের নারী’কে ভীষণ ঘৃ’ণা করি।’’ শ্রাবন্তীর সিঁথির সিঁদুর কি তা হলে অশান্তি চাপা দিতে? রোশনের ক’থায় ইঙ্গিত মিলছে তেমনটাই। এর আগে করবা চৌথ বা বিজয়া দশমীতেও চওড়া করে সিঁদুর পরেছেন অ’ভিনেত্রী।

তখন কিন্তু রোশন এ রকম কোনও মন্তব্য পোস্ট করেননি।এখানেই থামেননি তিনি। ‘কিক ৩’ জিম খুলতে চলেছেন অদূর ভবিষ্যতে, ইনস্টাগ্রামে তার আভাসও দিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় রেষারেষির সূত্রপাত রোশনের হাত ধরেই।

ফিটনেস জিম সেন্টার নিয়ে শ্রাবন্তীকে প্রথম কটাক্ষ তাঁর। তার পরেই মিম শেয়ার করে ইঙ্গিতে জানান, এক জন ছে’লের বিয়ে মানে জীবন নষ্ট হয়ে যাওয়া। যদিও সেই পোস্ট নিয়ে সাফাই ছিল, নিছক মজা করতে এই পোস্ট শেয়ার করছেন তিনি।

Back to top button