গুরুতর অ'সুস্থ অ'ভিনেতা তাসকিন

সময়ের আ'লোচিত অ'ভিনেতা তাসকিন রহমানেরশা’রীরিক অবস্থা আরও জটিল হয়েছে। সম্প্রতি চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশ থেকে ছুটে গিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ায়। গত অক্টোবরে তাসকিন রহমান জানান, তিনিশা’রীরিকভাবে সুস্থ।

চিকিৎসকের পরাম'র্শ মতো তাকে ১ মাস বিশ্রাম নিতে হবে। সে অনুযায়ী কাজ-শুটিং বন্ধ রেখে বিশ্রামে ছিলেন এই তারকা। কিন্তু বিশ্রামে থাকা অবস্থায় হঠাৎ করে তার প্রচণ্ড মা'থা ব্যথা শুরু হয়, সঙ্গে সমস্যা দেখা দেয় চোখে। এরপর আবারও পরীক্ষা করে তাসকিন জানতে পারেন, তার অ'পটিক্যাল নার্ভাল সিস্টেমে জটিলতা তৈরি হয়েছে। এর চিকিৎসা বেশ স্প'র্শকাতর। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য গত রোববার (২২ নভেম্বর) অস্ট্রেলিয়ায় গিয়েছেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়া থেকে তাসকিন রহমান বলেন, আমি প্রায় দুই মাস ধরে অ'সুস্থ। শরীরের দুর্বলা কাটছিলই না। তাই চিকিৎসকের পরাম'র্শে বিশ্রামে ছিলাম। এরমধ্যেই হঠাৎ করে আমা'র প্রচণ্ড মা'থা ব্যথা দেখা দেয়। আর যখনই মা'থা ব্যথা শুরু হয় তখনই চোখ ঘোলা হয়ে যায়। দিনদিন এটা বাড়ছিল। পরে জানতে পারলাম আমা'র অ'পটিক্যাল নার্ভাল সিস্টেমে জটিলতা দেখা দিয়েছে।

এটা মস্তিষ্কের সঙ্গে সংযু'ক্ত। বিষয়টা গুরুতর। সময় মতো সঠিক চিকিৎসা না হলে, এটি আরও জটিল হয়ে যেকোনো সময় বড় ধরনের কিছু হয়ে যেতে পারে।অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছানোর পর করো'নার জন্য দেশটির সরকারের অধীনে হোটেলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন তাসকিন। কোয়ারেন্টিন শেষ হলে তাকে হাসপাতা'লে ভর্তি হতে হবে কিনা সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে এরমধ্যেও তার চিকিৎসা শুরু হয়েছে বলেও জানান তিনি।

‘ঢাকা অ্যাটাক’খ্যাত এই তারকা আরও বলেন, অনেক আগেই আমি অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্ব পেয়েছি। ২০১৮ সালে শুটিংয়ের জন্য বাংলাদেশে যাই। সেখানে যাওয়ার পর কাজে এত ব্যস্ত হয়ে পড়েছি যে, এই দুই বছর এখানে (অস্ট্রেলিয়া) আসার সুযোগ হয়েনি। তবে এবার চিকিৎসার জন্য জরুরিভিত্তিতে আসতে হলো। বাংলাদেশে থাকতেই এখানকার চিকিৎসকদের পরাম'র্শ নিয়েছি। তারাই এখন মূল চিকিৎসা শুরু করেছেন।

অ'সুস্থতার জন্য আরও মাস খানেক শুটিংয়ে ফিরতে পারবেন না বলে জানান তাসকিন। তার ভাষ্যে, আসলে আমি কখনো কাজে ফাঁকি দেওয়া পছন্দ করি না। যারা আমা'র সঙ্গে কাজ করেছেন, তারা ঠিকই সেটা জানেন। কিন্তু এবার অ'সুস্থতার কারণে আমা'র বেশকিছু কাজ আ'ট'কে আছে। আমা'র নিজেরই সেটা খা'রাপ লাগছে। আশা করছি জানুয়ারি থেকে শুটিংয়ে অংশ নিতে পারবো।

সবার সহযোগিতা কামনা করছি। আর আমি যাতে খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে আবার কাজে ফিরতে পারি সেজন্য সবার কাছে দোয়া চাইছি। এর আগে অক্টোবরে চিকিৎসার জন্য ভা'রতের হায়দ্রাবাদে গিয়েছিলেন তাসকিন। তখন চিকিৎসক তার পালস রেট ও হার্টবিটের মধ্যে তারতম্য খুঁজে পান। যেটা স্বাভাবিক করতে মাসখানেক বিশ্রাম থাকার পরাম'র্শ দেওয়া হয়েছিল তাকে।

২০১৭ সালে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ সিনেমা'র মধ্য দিয়ে তাসকিন রহমানের বড় পর্দায় অ'ভিষেক ঘটে। প্রথম সিনেমাতেই দুর্দান্ত অ'ভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান তিনি। এরপর তার অ'ভিনীত ‘বয়ফ্রেন্ড’ ও ‘যদি একদিন’ সিনেমা মুক্তি পায় প্রেক্ষাগৃহে।

এছাড়া তাসকিনের মুক্তি প্রতীক্ষিত সিনেমা'র মধ্যে রয়েছে ‘মিশন এক্সট্রিম’, ‘শান’, ‘ক্যাসিনো’, ‘অ'পারেশন সুন্দরবন’, ‘ঢাকা ২০৪০’, ‘ওস্তাদ’ ও ‘গিরগিটি’। মৌখিকভাবে নতুন আরও কয়েকটি সিনেমাতে চূড়ান্ত হয়ে আছেন বলে জানান নীল নয়নের এই অ'ভিনেতা।

Back to top button