হ’তা’শায় ডুবে থাকা শামস এখন লোক হাসিয়েই মাসে ৫০ হাজার টাকা আয় করেন

অনেকেই নানা ঘাত-প্র’তি’ঘাত মা’ড়িয়ে সফ’লতার সোনার হরি’ণটি অর্জ’ন ক’রেন। আবার ঘাত-প্র’তি’ঘাতে পড়ে হতাশায় ডুবে যান অনেকে। হ’তাশা’য় ডুবে থাকা ব্য’ক্তিদের সফল’তা পাও’য়ার নজি’র খুবই কম।

কিন্তু হ’তা’শা থেকে সফ’লতা’র ন’জির গ’ড়েছে’ন কু’মিল্লার মে’য়ে ‘শামস আফ’রোজ চৌধুরী। হ’তা’শা’কে পুঁজি করেই ‘লোক হাসিয়েই তিনি এখন পু’রোধ’মে স্বা’বল’ম্বী। এখন প্রতিমাসে শাম’স আয় করেন মো’টা অ’ঙ্কের টাকা। সেই টা’কা আবার যেকো’নো চাকরি’জী’বীর আয়ের থেকে কয়ে’ক গু’ণ বেশি।

জানা যা’য়, চাকরি না পা’ওয়ার হ’তা’শা থেকে একটি ভিডিও করেন শাম’স আফ’রোজ। সেই ভিডিওটি ফেসবুক পেজ ‘থট’স অব শামস’-এ আ’প’লোড করেন। ওই ভিডিওতে শামস বলেন, আমা’র সিভি না চে’হারা” সমস্যা আমি জানি না। তারা আমাকে প’রীক্ষাই দিতে দিব না। পরী’ক্ষা দেয়ার আগেই বাতিল করে দিচ্ছে এরা।

চাকরি না পাও’য়ার হ’তা’শার জেরে করা ভিডি’ওটি তাকে সবার কা’ছে পরি’চিতি এনে দেয়। এতে কপাল খুলে’ যায় শামস আফ’রোজ চৌধুরীর। এখন বিনোদ’নের ভিডিও ‘থটস অব শামস’ নামক ফে’সবুক পেজে নিয়মিত আপ’লোড করেন তিনি। শামস নিজে’কে প্রতিটি ভিডিওতে নানা চরিত্রে উপ’স্থা’পন করেন। কখ’নো শামসু ভাই, কখ’নো কুলসুম, আ’বার কখনো নানি কিংবা আ’ম্মা’জান সাজেন তিনি।

সব চরিত্রে’ই অ’ভিনয় করে দর্শকদের হাসাতে পারেন শামস। আর সেই বি’নোদনের ভিডিওই তার প্র’ধান আ’য়ের উৎস। শাম’স তার ফেসবুক পেজ বা ই’উটি’উব চ্যানেলে ভিডিও আ’প’লোড করার পরই হা’জার হা’জা’র শে’য়ার হয়। এসব ভিডিও বিভি’ন্ন পেজে’ও ঘুরতে থাকে। এতে ধীরে ধীরে পু’রো’ধমে ক’ন’টেন্ট ক্রে’ই’টর হি’সেবে প্র’তিষ্ঠিত হয়েছেন তিনি।

শামস আ’ফ’রোজ চৌধুরী বলেন, আমা’র প্রথম চিন্তায় থাকে আমি যে ভিডিও বানা’বো তা যেন সবা’র সঙ্গে রিলে’ট (স’ম্পর্কিত) হয়। কয়ে’কটি কে’রে’ক্টারে মুভি নি’য়ে প্রথ’মে একটি ভিডি’ও করি। ওই ভিডিওটি ভাই’রাল হয়ে পড়ে। তিনি আ’রো ব’লেন, যদি কেউ মাসে তিন চারটা ভিডিও দিতে পারে, তবে মাসে পঞ্চা’শ হাজা’রের অধি’ক টাকা আয় করা সম্ভব।

এদিকে নি’জের জে’লা বলেই কুমি’ল্লার ভাষায় তিনি ভিডিও বানান। এতে কুমিল্লার আঞ্চলি’ক ভাষা শুনে মজা পান নেটিজেনরা। এতে তার ফ’লো’য়ারের সংখ্যা দিন দিন বা’ড়ছে। এর’ইমধ্যে ‘থ’টস অব শামস’ নামের ফেসবুক পেজের ফলোয়ার সংখ্যা সাড়ে আট লাখে দাঁড়িয়েছে।

একই নামের ইউটিউব চ্যানেলে সাব’স্ক্রাই’বের সংখ্যা এক লাখে’রও বেশি। শাম’সের জনপ্রি’য়তা বিবেচ’না করে বিভি’ন্ন ব্র্যান্ড তার ভিডিওতে স্পন্সরও করছে।শাম’সের লক্ষ্য, আগামী পাঁচ বছরে তার এই প্ল্যা’টফ’র্মকে তরু’ণ্যের ভি’ন্নধ’র্মী অনু’প্রেরণা হি’সেবে দেশের প্র’টি কো’ণায় পৌঁছে দেয়া।

Back to top button