প্রসেনজিতের সঙ্গে তখন ঋতুর প্রে'ম, তাই নায়িকার চরিত্র পাইনি’, নেপোটিজম নিয়ে বো'মা ফাটালেন শ্রীলেখা

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃ'ত্যুতে স্তব্ধ নেটিজেনরা। প্রশ্ন তুলছেন, বলিউডে পক্ষপাতিত্বের জন্যই অবসাদে চলে গিয়েছেন তিনি। তবে এই পক্ষপাতিত্বের সংস্কৃতি কি শুধুই বলিউডের? নাকি টলিউডের যথেষ্ট উপস্থিতি রয়েছে?

টলিউডে এমন কিছু অ'ভিজ্ঞতা নিয়ে এবার মুখ খুললেন অ'ভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে লাইভে এসে ডিপ্রেশন নিয়েও আলোচনা করলেন তিনি। শ্রীলেখা বলছেন, “ডিপ্রেশন আছে থাকবে। এটাকে নিয়ে আমি বহু বছর ধরে ফাইট করছি। করব।

আমি আত্মহ'ত্যাপ্রবণ নই। একটা সময় ছিলাম।”শ্রীলেখা জানাচ্ছেন পেশাদার জীবন ও ব্যক্তিগত জীবনে তিনি যখন একা হয়ে গিয়েছিলেন তখন আত্মহ'ত্যাপ্রবণ হয়েছিলেন। কখনোই আপোষ করতে পারেননি এবং ঠিক ভাবে মিশতে পারেননি বলে এই পরিণতি হয়েছিল বলে জানান তিনি।

একেবারে কেরিয়ারের গোড়ার থেকে কথা বলা শুরু করেন শ্রীলেখা। সে সময় দম'দম ক্যান্টনমেন্টে থাকতেন অ'ভিনেত্রী। ছোটবেলা থেকেই বই পড়তে খুব ভালোবাসতেন তিনি। ডিপ্রেশন নিয়ে শ্রীলেখা বলছেন,” এটা এমন একটা

জিনিস যেটা ভিতর থেকে কুরে কুরে খায়।” তিনি বলেন, ”কথা বলতে বলতে লাইভে আসলে প্লিজ বলবেন না আমি নাট'ক করছি। সিনেমা'র ক্যামেরার সামনে আমি ভালো নাট'ক করতে পারি। ক্যামেরা অফ হয়ে গেলে সেই অর্থে আমি করতে পারিনা। যার জন্য বহু দাম দিতে হয়েছে। এবং এই লাইভ ভিডিওর পরে হয়তো আরও বেশি দিতে হবে যার জন্য আমি প্রস্তুত।”

শ্রীলেখা বলছেন, “ইন্ডাস্ট্রিতে আমা'র কেউ নেই। আগেও ছিল না এখনও নেই।” এইজন্যই সুশান্তের সঙ্গে তিনি নিজেকে খুব রিলেট করতে পারছেন বলে জানান। কারণ ইন্ডাস্ট্রিতে যখন এসেছিলেন তখন কারোর তাবেদারি করেননি। সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টাতেই এই জায়গা তৈরি করে নিয়েছিলেন। ওড়িয়া ছবি এবং টিভি সিরিয়াল দিয়ে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন শ্রীলেখা।

ইন্ডাস্ট্রিতে একটা পাওয়ার গেম চলে বলে জানান শ্রীলেখা। তিনি বলেন, “যে প্রযোজক-পরিচালক বা স্বনামধন্য নায়কের কাছে ক্ষমতা আছে তিনি তাঁর ব্যবহার করেন। সুন্দরী মহিলারা যদি নিজেদের অস্তিত্বের জন্য লড়তে থাকে সেটা যেন ইন্ডাস্ট্রি মেনে নিতে পারে না। তাই প্রথম দিন থেকেই আমি মিস ফিট ছিলাম।”

Back to top button