জে’নে নিন বলিউড সুন্দরীদের রূপের গো’পন র’হস্য!

টিভি পর্দায় তাদের উপ’স্থিতি মানেই বাড়তি মনযোগ, বাড়তি আ’ক’র্ষণ। তাদের রূপের দিকে তাকিয়ে চোখের পলক প’ড়ে না কারও কারও। শত ব্যস্ততা আর কাজে’র পরেও তাদের রূপ যেন ঝলমল ক’রতে থাকে।

তাদের ত্বক, ফিটনেস সবই চোখে পড়ার মতো। আর একইভাবে তা ধ’রে রাখেন বরাবর। এজন্যই যেন সবার আগ্রহের কে’ন্দ্রবিন্দুতে বলিউড সু’ন্দরীদের রূপের রহ’স্য। জে’নে নিন আপনিও-

সোনম কাপুর: বাবার পরিচয় ছাপিয়ে পরিচিত হয়ে উঠেছেন নিজে’র নামেই। তার রূপের জাদুতে মাতোয়ারা সারা বিশ্ব। নিখুঁত ব্য’ক্তিত্বর আর ঝলমলে হাসি সব সময়ই যেন প্রা’ণবন্ত করে রাখে তাকে। তিনি সোনম কাপুর। ত্বকের চেয়েও বেশি যত্নশীল ফিটনেসে।

পরিশ্রম না করলে যে নিখুঁত ত্বক পাওয়া যায় না, তা পুরোপুরি বিশ্বা’স করেন এই নায়িকা। তবে কোনো ঘরোয়া টোট'কার চেয়েও তিনি নির্ভর করেন ভালো ডায়েটের উপর। সকালের ঘুম থেকে উঠে সোনম প্রথমেই গরম পানিতে লেবুর রস এবং মধু মিশিয়ে খান। এতে শ’রীরের অনেক ট'ক্সিন বেরিয়ে যায়। ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়ে। তাছাড়া ক্লিনজিং, টোনিং এবং ময়েশ্চারাইজিংয়ের রুটিন মেনে চলেন এই বলিউড নায়িকা।

দীপিকা পাড়ুকোন: এই মু’হূর্তে বলিউডের দামী নায়িকাদের একজন দীপিকা পাড়ুকোন। শত ব্যস্ততার পরেও নিজে’র ত্বকের যত্ন নিতে একদমই ভুল করেন না তিনি। এই কারণে তার গম'রঙা গায়ের রং অনেকের কাছেই ঈর্ষণীয়। তবে ত্বক প’রিষ্কার রাখার জন্য যথেষ্ট পরিশ্রম করেন তিনি।

নিয়মিত দশ থেকে ১২ গ্লাস পানি খান এই নায়িকা, যাতে শ’রীর থেকে সব ট'ক্সিন ধুয়ে যায়। এছাড়া পুষ্টিকর খাবার খান, যাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন শ’রীরে যায়। ত্বক যাতে শুষ্ক না হয়ে যায়, সে জন্য সব সময় ফেশিয়াল মিস্ট ক্যারি করেন দীপিকা।

ঐশ্বরিয়া রাই: তার রূপের স্বীকৃতি মিলেছিল আরও অনেক আগে, সেই ১৯৯৪ সালে। জিতেছিলেন বিশ্বসু’ন্দরীর খেতাব। তার সৌন্দর্যের রহ’স্য জানতে উন্মুখ অনেকেই। নিয়মিত ডায়েট এবং এক্সারসাইজে’র মধ্যে থাকেন জনপ্রিয় এই বলিউড অ'ভিনেত্রী।

মুখের পো'ড়াভাব কিংবা কোনো রকম দাগছোপ দূ’র করার জন্য তিনি ভরসা করেন ঘরোয়া টোট'কার উপর। বেসন, হলুদ এবং দুধ মিশিয়ে একটা প্যাক বানিয়ে সপ্তাহে তিনদিন লা’গান তিনি। ত্বকের আর্দ্রতা ধ’রে রাখতে শসার নির্যাস দিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক ব্যবহার করেন।

আলিয়া ভাট: বলিউডের সবচেয়ে আদুরে চেহারার নায়িকা তিনি। বয়স খুব বেশি না হলেও অ'ভিনেত্রী হিসেবে এর মধ্যেই জায়গা করে নিয়েছেন দর্শকের হৃদয়ে। যেমন সু’ন্দরী তেমনই ফিটনেস স’চেতন। তবে আলিয়া তেমন একটা রূপচর্চা ক’রতে পছন্দ করেন না।

সুন্দর ত্বক পাওয়ার জন্য ডায়েট, এক্সারসাইজ এবং যোগ ব্যায়ামের উপরেই ভরসা রাখেন তিনি। তবে প্রতিদিন নিয়ম করে তুলসীপাতা বাটা এবং নিমপাতা বাটা কোনো ফেসপ্যাকের স’ঙ্গে মিশিয়ে মুখে লা’গান। এতে তার ত্বক সহ'জেই ডিট'ক্সিফাই হয়ে যায়। শুকিয়ে গেলে গো'লাপজল দিয়ে ধুয়ে নেন তিনি। ব্যস, আলিয়ার রূপের রহ’স্য এটুকুনই।

কৃতি শ্যানন: কদিনেই যেন বলিউড মাত করে ফে’লেছেন মিষ্টি হাসির এই নায়িকা। রূপে গুণে যার দারুণ সুনাম রয়েছে। নিজে’র সৌন্দর্য ধ’রে রাখতে একদম অবহেলা করেন না কৃতী। বাড়ির হালকা খাবার খেতে ভালোবাসেন তিনি। নিয়মিত এক্সারসাইজ করেন।

ক্লিনজিং, টোনিং এবং ময়েশ্চারাইজিংয়ের রুটিন মেনে চলেন। বাড়ি ফিরতে যতই দেরি হোক না কেন, শোয়ার আগে মুখ ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার লা’গিয়ে নেন। আর তাইতো এমন ঝলমলে রূপ তার।

Back to top button