ঝরে পড়া রোধে অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের তালিকা করবে মাউশি!

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর যেসব শিক্ষার্থী অনুপস্থিত থাকবে তাদের তালিকা তৈরি করে পাঠানোর জন্য নির্দেশ দেয়া হবে।ঝরে পড়া রোধে অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের না আসার কারণ খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের (মাউশি) সচিব মো. মাহবুব হোসেন।রোববার (২৪ জানুয়ারি) আন্তর্জাতিক শিক্ষা দিবস-২০২১ উপলক্ষে বাংলাদেশ ইউনেস্কো জাতীয় কমিশনের আয়োজনে রাজধানীর ব্যানবেইজ ভবনে এক অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে সচিব এ কথা বলেন।

মাহবুব হোসেন বলেন, আগামী ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পাঠদানের উপযোগী করে তুলতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এরপর পরিস্থিতি বুঝে ক্লাস কার্যক্রম শুরু করা হবে। পুনরায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর কোন কোন শিক্ষার্থী ক্লাসে উপস্থিত হচ্ছে না তার তালিকা তৈরি করা হবে। কেন তারা স্কুলে আসছে না তার কারণ খতিয়ে দেখা হবে।

সচিব বলেন, শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়া রোধে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। যারা ক্লাসে আসবে না তাদের তালিকা তৈরি করতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরকে নির্দেশ দেয়া হবে। মাঠ কর্মক'র্তাদের মাধ্যমে স্কুলে অনুপস্থিতির তালিকা তৈরি করে তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোজ নেয়া হবে। বিদ্যালয়ে আসলে তাদের ক্ষতি হবে না বা ঝুঁ’কির মধ্যে পড়বে না অ'ভিভাবকদের তা বোঝানো হবে। সেভাবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে ঝুঁ’কিমুক্ত করে তৈরি করতে হবে বলেও জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর মো. ফরাসউদ্দিন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব আমিনুল ইস'লাম খান, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব গো'লাম মো. হাসিবুল আলমসহ শিক্ষা মন্ত্রণালয় ঊর্ধ্বতন কর্মক'র্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Back to top button