শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে নেয়া হতে পারে যে সব সিদ্ধান্ত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হলেও একদিনে একটি শ্রেণির সব শিক্ষার্থীকে ক্লাসে আসতে হবে না। একটি ক্লাসে যত জন শিক্ষার্থী থাকবে তাদের শিফটিং করে ক্লাসে নিয়ে আসা হবে। শিগগিরই এ সংক্রান্ত একটি নীতিমালা তৈরি করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো পাঠানো হবে।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এসব কথা জানান মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গো'লাম ফারুক।

তিনি বলেন, স্কুল-কলেজ খোলা হলেও সব শিক্ষার্থীকে একই দিনে ক্লাসে আসতে হবে না। কোন ক্লাসে কতজন শিক্ষার্থীকে আসতে হবে সে সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা শিগগিরই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠানো হবে।এর আগে গত শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি নিতে নির্দেশনা দেয় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।

ইউনিসেফের সহায়তায় তৈরি করা ৩৯ পৃষ্ঠার ওই নির্দেশনায় একটি বেঞ্চে একজন করে শিক্ষার্থী বসতে পারবে। শিক্ষার্থীদের প্রবেশ ও বেরিয়ে যাওয়ার পথ আলদা হতে হবে। ক্লাসের আয়তনের ওপর শিক্ষার্থীর সংখ্যা নির্ভর করবে। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানের সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরতে হবে।

মাস্ক সরবরাহ হবে স্কুল থেকে।এছাড়া হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা থাকবে। স্কুলের শ্রেণীকক্ষ, টয়লেট, স্কুল প্রাঙ্গণ পরিচ্ছন্ন করতে নির্দেশনা দেয়া হবে। বেসরকারি স্কুল নিজস্ব তহবিল থেকে খরচ বহন করবে। আর সরকারি স্কুলগুলোর খরচ দেবে সরকার।

Back to top button