শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিয়ে বৈঠক বৃহস্পতিবার, আলোচনায় তিন বিষয়

করো'না পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ রয়েছে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কয়েক দফা বাড়ানো হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি। ফলে বাতিল হয়েছে গত বছরের সকল বোর্ড পরীক্ষা। চলতি বছরের শিক্ষা কার্যক্রম কি হবে, তা নিয়ে শিগগিরই ঘোষণা আসতে পারে।

এ বিষয়ে আগামী ২১ জানুয়ারি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির অংশগ্রহণে এক ভা'র্চ্যুয়াল বৈঠক হওয়ার কথা জানা গেছে। বৈঠকে চলতি বছরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি সংক্রান্ত আলোচনা, সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে এসএসসি ও সমমানের শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হবে কিনা এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা এই তিন বিষয় প্রাধান্য পেতে পারে।

বৈঠকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলসহ ঊর্ধতন কর্মক'র্তারা অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, করো'নার কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ফেব্রুয়ারিতেই খোলা হবে কিনা বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীদের আংশিক উপস্থিতিতে ক্লাস নেওয়ার বিষয়টিও প্রাধান্য পেতে পারে।

ক্লাস চালু হলে চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা অগ্রাধিকার পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে, ফেব্রুয়ারি থেকে সব শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু নাও হতে পারে।এছাড়াও এনসিটিবির তৈরি করার সংক্ষিপ্ত সিলেবাস ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের মতামত নিয়ে ক্লাস শুরু করার দিনও ঘোষণা হতে পারে।

বৈঠকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর, মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) এবং শিক্ষা বোর্ডগুলোর কর্মক'র্তাদের অংশ নেওয়ার কথাও জানা গেছে।এর আগে গত ১৫ জানুয়ারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়ায় সরকার।

সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষে ফিরিয়ে জুনে এসএসসি ও জুলাই অথবা আগস্টে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নেওয়া হতে পারে। এজন্য সিলেবাস সংশোধন করা হবে বলেও জানান তিনি।

Back to top button