প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণেরদা’বিতে সমাবেশ

বাদ পড়া ৪১৫৯টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণেরদা’বিতে সমাবেশ করেছে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত সমাবেশে এদা’বি জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ১৯৭৩ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি যু'দ্ধবি'ধ্বস্ত জাতিকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করার জন্য ৩২ হাজার এবং পরবর্তীতে ৪১৬০টি সহ ৩৬১৬০টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করেন। তাকে আজও বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা চিরস্ম'রণীয় করে রেখেছেন।

তারা আরও বলেন, বাঙালি জাতি শিক্ষার ভিত্তি মজবুত করার জন্য ২০১৩ সালের ৯ জানুয়ারি ২৬১৯৩টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবং সেই সঙ্গে তিনি জানান, ‘আজ থেকে বাংলাদেশে আর কোনো বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থাকবে না।’

কিন্তু পরিতাপের বিষয় জাতীয়করণকালীন যে পরিসংখ্যান করা হয়েছিল সেটি যথাযথভাবে না হওয়াতে তখন ৪১৫৯টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ থেকে বাদ পড়ে। পরবর্তীতে জাতীয়করণ থেকে বাদ পড়া এই বিদ্যালয়গুলো থেকে মধ্য থেকে উপজে'লা ও জে'লা যাচাই বাছাই কমিটি জাতীয়করণের জন্য যাচাই-বাছাই করে মন্ত্রণালয়ে পাঠায়।

কিন্তু এ বছরের গত ৬ জানুয়ারি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের সুপারিশের পরিবর্তে নতুন প্রকল্প বিদ্যালয় স্থাপনের সুপারিশ করেন। যা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ম'র্মাহত করেন।

তারাদা’বি জানিয়ে বলেন, আম'রা চাই নতুন প্রকল্প বিদ্যালয় স্থাপনের আগেই যাচাই বাছাই কমিটির দেওয়া সকল বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করা হোক।সমাবেশ শেষে এ বিষয়ে একটি স্মা'রকলিপি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রদান করতে যান কতিপয় শিক্ষক। এছাড়া সমাবেশে বিভিন্ন এলাকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

Back to top button