কন কনে ঠান্ডার মধ্যেও খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীরা

সময় তখন রাত সাড়ে বারোটা। হয়ত আমি বা আপনি কনকনে এই শীতে উষ্ণতা পেতে নরম বিছানায় কম্বল বা কাথা গায়ে দিয়ে শুয়ে আছি।অথচ এই কনকনে শীতের মধ্যেও একদল শিক্ষার্থীরা আন্দলন করছে।

বলছিলাম বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) ইংরেজি বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের কথা।পরীক্ষা নেওয়া, ফলাফল প্রকাশসহ ৮ দফাদা’বিতে একাডেমিক ভবনে তালা লাগিয়ে শীতের মধ্যে জবুথবু হয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে তারা।জানা যায়, পরীক্ষা নেওয়া,

ফলাফল প্রকাশসহ ৮ দফাদা’বিতে সোমবার (৪ জানুয়ারি) সকাল ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হেয়াত মামুদ ভবনের (একাডেমিক ভবন-১) মূল ফট'কে তালা দিয়ে এ কর্মসূচি পালন করছে ইংরেজি ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা।

এর আগে প্রশাসনিক ভবনে তালা লাগিয়ে আ'ন্দোলন করলে ৭ দিনের মধ্যে পরীক্ষা নেয়া হবে উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর এমন আশ্বা'সের ভিত্তিতে অবরোধ তুলে নিয়েছিল তারা।আশ্বা'সের ৭ দিন পেরিয়ে গেলেও উপাচার্য কথা না রাখায় ফের আ'ন্দোলনে নামেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ২০১২-১৩ সেশনের শিক্ষার্থীদের অ'ভিযোগ, দীর্ঘ প্রায় আট বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো মাস্টার্স শেষ করতে পারেনি।সরকারি চাকরির বয়স প্রায় শেষের দিকে। উপাচার্য আশ্বা'স দেওয়ার পরও কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না।উপাচার্য কথা না রাখায় বাধ্য হয়েই আ'ন্দোলনে নেমেছেন তারা। সকাল থেকে এখানে অবস্থান কর্মসূচী পালন করছে।

এখন গভীর রাত, এমন শীতে এত রাত হয়ে গেলেও কেউ এখনো তাদের কোন রকম আশ্বা'স দেয়নি।এমন অবস্থায় যদি আমাদের কারো কিছু হয়, তাহলে এর দায়ভা'র সম্পূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে নিতে হবে বলেও জানান আ'ন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।এ সময় পরীক্ষা নেওয়াসহ ৮ দফাদা’বি মেনে নেয়া না হলে কর্মসূচী চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা।

Back to top button