‘অটোপাস’ চায় সাত কলেজের শিক্ষার্থীরাও

চলমান করো'না ভাই'রাসের কারণে দীর্ঘ ৮ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দীর্ঘদিন ধরে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকায় তীব্র সেশন জটের আশ'ঙ্কা প্রকাশ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাতটি কলেজের শিক্ষার্থীরা।

এ অবস্থায় সব ইয়ারে অটোপাস দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। অটোপাসের দাবিটি জো'রালো ভাবে সবার কাছে তুলে ধরতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি ইভেন্ট খুলেছেন শিক্ষার্থীরা।

সেখানে আগামী ৩০ ডিসেম্বর কর্মসূচি দিয়েছেন তারা। ইভেন্টটিতে ইতোমধ্যে ১২৮ জন শিক্ষার্থী যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। এছাড়া আরও সাড়ে ৪ হাজার শিক্ষার্থী কর্মসূচিতে যাওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

এ প্রসঙ্গে তিতুমীর কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মো. রাকিব বলেন, এমনি সময়ে আমাদের অনার্স শেষ করতে ৭-৮ বছর সময় লেগে যায়। এরপর করো'নার কারণে বন্ধ রয়েছে সব একাডেমিক শিক্ষা কার্যক্রম। এর ফলে আমাদের সেশনজট আরও দীর্ঘ হবে। তাই আমাদের সব ইয়ারের শিক্ষার্থীদের অটোপাস দেয়া হোক।

শিক্ষাজীবনে গুরুত্বপূর্ণ এইচএসসি পরীক্ষা না নিয়ে অটোপাস দেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, করো'নার কারণে এ বছর এইচএসসি পরীক্ষা নেয়া হয়নি। এছাড়া স্কুল-কলেজে অটোপাস দিয়ে পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হচ্ছে। তাহলে আম'রা কী' দোষ করেছি?

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী সাজিদ বলেন, আমা'র অনার্স ফাইনাল পরীক্ষা শেষ হয়েছে। তবে আমা'র সিজিপিএ আসেনি। কারণ হিসেবে জানানো হয়েছে, দ্বিতীয় বর্ষে একটি পরীক্ষায় আমা'র ফেল রয়েছে। করো'নাা পরিস্থিতিতে কবে পরীক্ষা হবে তারও কোন নিশ্চয়তা নেই। এজন্য আম'রা অটোপাসের দাবি জানাচ্ছি

এ প্রসঙ্গে জানতে সাত কলেজের সমন্বয়ক (ফোকাল পয়েন্ট) ও কবি নজরুল সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আই কে সেলিম উল্লাহ খন্দকারের ব্যবহৃত মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি ফোন ধরেননি।

Back to top button