প্রাথমিকের জন্য সরকারের নতুন উদ্যোগ

প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের পরবর্তী শ্রেণিতে প্রমোশনের জন্য ‘লেসন প্ল্যান’ চালু করার কথা ভাবছে সরকার। কোমলমতি শি'শুদের শিখন দক্ষতা তৈরি করতেই এ কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

ইতোমধ্যে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমী (নেপ) একটি কারিকুলাম তৈরি করেছে। বিষয়টি যাচাই বাছাই করতে কাজ করছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। জানতে চাইলে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমীর (নেপ) পরিচালক মো. ইউসুফ আলী বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, করো'না পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন শি'শুরা বিদ্যালয়ের বাইরে রয়েছে।

এ কারণে ৩০ দিনের একটি প্যাকেজ নেয়া হয়েছে। নতুন ক্লাসে উঠার সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষার্থীদের এটি পাঠ করানো হবে। এটি শেষ করার পর তারা পরবর্তী ক্লাসের জন্য দক্ষ হবে বলেও জানান তিনি। তবে বিদ্যালয় বন্ধের মধ্যে এটি চালু করা হবে কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান নারায়ণ চন্দ্র সাহা বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ক্লাস ওয়ানে যদি কোনো শি'শু অক্ষর চিনতে না পারে তবে সে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উঠে কী' করবে? এর ফলে শিক্ষার্থী ড্রপ আউট হবে। অর্থাৎ শিক্ষার্থীদের দুর্বলতা শনাক্ত করে তা পূরণ করতেই এ কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

এরই মধ্যে এর কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে রয়েছে। তিনি আরো বলেন, করো'না পরিস্থিতির মধ্যেই কারিকুলামটি বাস্তবায়নের চেষ্টা করা হচ্ছে। এমনকি এ মাসেও তা চালু করা হতে পারে। তবে যদি সম্ভব না হয় তবে বিদ্যালয় খোলার পর ‘লেসন প্ল্যানটি’ শিক্ষার্থীদেরকে পাঠ ও অর্জন করানো হবে।

Back to top button