চট্টগ্রামে প্রথম করো'না রোগী শনাক্ত

চট্টগ্রাম নগরের দামপাড়া এলাকার এক বৃদ্ধ করো'না ভাই'রাসে আ'ক্রান্ত হয়েছেন। আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে অবস্থিত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি) হাসপাতা'লে কোভিড-১৯ রোগ শনাক্তকরণ পরীক্ষার এই ব্যক্তির শরীরে করো'নাভাই'রাস ধ'রা পড়ে।

আ'ক্রান্ত রোগীকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতা'লের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। রাতেই তাঁর বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম জে'লার সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি প্রথম আলোকে বলেন, জেনারেল হাসপাতা'লে চিকিৎসাধীন একজন ব্যক্তি করো'না ভাই'রাসে আ'ক্রান্ত হয়েছেন। ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি হাসপাতা'লে কোভিড-১৯ রোগ শনাক্তকরণ পরীক্ষার পর লোকটি ভাই'রাসে আ'ক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হই আম'রা। তাঁকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতা'লের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, করো'না আ'ক্রান্ত ব্যক্তির তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ শুরু করেছি। তিনি কী'ভাবে ভাই'রাসে আ'ক্রান্ত হয়েছেন তা আম'রা বের করার চেষ্টা করছি।

অ'সুস্থ অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার আ'ক্রান্ত রোগী চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতা'লে ভর্তি হন। শুক্রবার সন্ধ্যায় তাঁর নমুনা পরীক্ষা হওয়ার পর করো'না ভাই'রাসের অস্তিত্ব মেলে।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্র জানায়, ওই রোগীর বয়স ৬৭ বছর। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতা'লে ভর্তি হওয়ার সময় বিদেশফেরত কারওর সংস্প'র্শে তিনি এসেছেন কিনা চিকিৎসকেরা জানতে চেয়েছিলেন। রোগী ‘না’ সূচক জবাব দিয়েছিলেন।

চট্টগ্রাম জে'লা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, পু'লিশ রোগীর বাড়ি লকডাউন করে দিয়েছে। কমিউনিটি ট্রান্সমিশন থেকে লোকটি আ'ক্রান্ত হতে পারেন। কিন্তু চট্টগ্রামের লোকজন এখনো ভ'য়াবহ ভাই'রাসটি স'ম্পর্কে গুরুত্ব দিচ্ছে না। বাইরে অবাধ বিচরণ করছে। ম'সজিদেও ভিড় কমছে না। এটাই চিন্তার বিষয়। সবাই সতর্ক না হলে বিপদ থেকে রক্ষা পাবে কী'ভাবে?

Back to top button