পাত্রী দেখতে গিয়ে করোনা স’ন্দেহে প্রবাসী যুবক আ’ট'ক

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজে’লার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ভৈরবদী গ্রামে বেড়াতে আসা এক ইতালি ফেরত কুমিল্লার যুবকের শরীরে করোনাভাইরাস রয়েছে স’ন্দেহে বাড়ি ঘেরাও করে রাখে এলাকাবাসী।

পরে ওই যুবককে আ’ট'ক করেছে সোনারগাঁ থা’না পু’লিশ। মঙ্গলবার সকালে তাকে আ’ট'কের পর রাজধানী ঢাকার মহাখালীতে প্রেরণ করা হয়।

এ ঘটনায় পুরো মোগরাপাড়া ভৈরবদী এলাকায় করোনাভাইরাস আ’তঙ্ক বিরাজ করছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজে’লার স্বপহাম গ্রামের হরিদাসের ছেলে ও ইতালি প্রবাসী জগন্না’থ (৩৭)।

সে দুইদিন আগে সোনারগাঁ উপজে’লার ভৈরবদী গ্রামে তার নিকটআত্মীয় হরি কিশোরের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। সেখানে ওই যুবক অবাধে চলাফেরা করছিল।

স্থানীয় লোকজন তাকে অবাধে চলাফেরা করতে নি’ষেধ করলেও সে তা অ’মান্য করা শুরু করে। পরে এলাকাবাসী ওই যুবকের শরীরে করোনাভাইরাস রয়েছে স’ন্দেহে হরি কিশোরের বাড়ি ঘে’রাও করে।

খবর পেয়ে সোনারগাঁ থা’না পু’লিশ ওই যুবককে আ’ট'ক করে রাজধানী ঢাকার মহাখালীতে প্রেরণ করে। এলাকাবাসীর অ’ভিযোগ, দুই-তিনদিন ধরে ওই যুবক এলাকায় অবাধে চলাফেরা করছিল।

ওই যুবককে এলাকাবাসী বা’ধা দিলে সে তা অ’মান্য করে। এছাড়া মঙ্গলবার সকালে তিনি স্বজনদের নিয়ে উপজে’লার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ভৈরবদী গ্রামে তার বিয়ের জন্য পাত্রী দেখতে যান।

এ সময় ভৈরবদী গ্রামের বাসিন্দারা সিঙ্গাপুরফেরত শুনে ওই যুবককে করোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত স’ন্দেহে আ’ট'ক করে রাখে। পরে এলাকাবাসী ক্ষি’প্ত হয়ে হরি কিশোরের বাড়িটি ঘিরে করে রাখে।

খবর পেয়ে পু’লিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই যুবককে আ’ট'কের পর রাজধানী ঢাকার মহাখালীতে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়।

সোনারগাঁ থা’নার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, এক যুবক সোনারগাঁয়ে বেড়াতে আসলে এলাকাবাসী তার শরীরে করোনাভাইরাস রয়েছে এ স’ন্দেহে পু’লিশে খবর দেয়। পু’লিশ ওই যুবককে আ’ট'কের পর রাজধানী ঢাকায় পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করে।

Back to top button