হেলপারকে নিজের আসনে বসিয়ে ঘুমালেন চালক, কিছুদূর যেতেই মৃ'ত্যু

দীর্ঘ যাত্রার ক্লান্তিতে হেলপার হোসেন আলীকে (৩৫) নিজের আসনে বসিয়ে কেবিনে ঘুমিয়েছিলেন চালক ইসাহাক আলী (৪৫)। এতেই ঘটলো ম'র্মা'ন্তিক দুর্ঘ'টনা।

শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে রাজশাহী নগরীর খড়খড়ি বাইপাস এলাকায় এ দুর্ঘ'টনায় মা'রা যান চালক। মা'রাত্মকভাবে আ'হত হন হেলপারও।

নি'হত ইসাহাক আলী কুষ্টিয়া সদর উপজে'লার মঙ্গলবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা। আ'হত হেলপার হোসেন আলীর বাড়ি একই গ্রামে।তাকে আশ'ঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতা'লে নেন দমকল কর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী আরেক ট্রাকের চালক টিটু জানান, তারা কয়েকটি ট্রাকে করে পাথর নিয়ে সোনাম'সজিদ থেকে ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। পাথর বোঝাই একটি ট্রাক ( কুষ্টিয়া ট-১১-১৭৮৯) চালাছিলেন ইসাহাক।

পথে তিনি তার হেলপার হোসেন আলীকে চালকের আসনে বসিয়ে কেবিনে ঘুমাতে যান। ট্রাকটি খড়খড়ি বাইপাস এলাকায় হেলপার নিয়ন্ত্রণ হারান। ওই সময় রাস্তার পাশে থেমে থাকা আরেকটি ট্রাকের পেছনের অংশের সঙ্গে ধাক্কা দেন। এতে ট্রাকটির সামনের অংশ দুমড়ে-মুচড়ে যায়। কেবিনে আ'ট'কা পড়েন চালক ইসাহাক ও হেলপার হোসেন আলী। খবর পেয়ে উ'দ্ধারকর্মীরা আসে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স রাজশাহী সদর দপ্তরের উপ-সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন জানান, দুর্ঘনাকবলিত ট্রাকটি চালাচ্ছিলেন হেলপার। তিনি নিয়ন্ত্রণ হারালে এ দুর্ঘ'টনা ঘটে। দুর্ঘ'টনার পর চালক কেবিনে এবং চালকের আসনে থাকা হেলপার স্টিয়ারিং এর সঙ্গে আ'ট'কা পড়েন। খবর পেয়ে রাজশাহী সদর ও নওহটা ফায়ার স্টেশনের দুটি দল তাদের উ'দ্ধার করে। রামেক হাসপাতা'লে নেয়ার পর দায়িত্বরত চিকিৎসক চালককে মৃ'ত ঘোষণা করেন।

রাজশাহী নগরীর চন্দ্রিমা থা'না পু'লিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রবিউল ইস'লাম জানান, ম'রদেহ রামেক হাসপাতাল ম'র্গে নেয়া হয়েছে। এছাড়া আ'হত হেলপার রামেক হাসপাতা'লে চিকিৎসাধীন। দুর্ঘ'টনাকবলিত ট্রাকটি উ'দ্ধার করা হয়েছে। নিয়ে আইনত ব্যবস্থা নিচ্ছে পু'লিশ।

Back to top button
You cannot copy content of this page