গলাব্যথায় ভুগছেন? মুহূর্তেই মুক্তি মিলবে সহ'জ এই উপায়ে

করো'নার আতঙ্কে রয়েছে সারা বিশ্ব। এর থেকে রেহাই পেতে নানা রকম উপায়ও মেনে চলছে। তবে করো'নার সঙ্গে সঙ্গে এখন চলছে বর্ষাও। তাই ঋতু পরিবর্তনের এই সময় ঠাণ্ডা, জ্বর, কাশি, গলাব্যথা লেগেই থাকে। এসব লক্ষণ করো'নায় আ'ক্রান্ত হলেও দেখা দেয়। তাই সবাই আতংকিত থাকেন।
তবে আবহাওয়ার পরিবর্তের জেরে এসব সমস্যা দেখা দিলে আতংকিত হবেন না। বরং এই সমস্যা সমাধানে সামান্য কিছু ঘরোয়া পদ্ধতিই মেনে চলুন। যা আপনাকে মুহূর্তেই মুক্তি দেবে। এ সময় বেশি প্রভাব পড়ে গলায়। তাই লকডাউনে এমন কিছু উপাদান সঙ্গে মজুত রাখু'ন যাতে সমস্যা মেটাতে একটি উপাদানই মোক্ষম হয়ে উঠতে পারে। এতে করো'না সংক্রমণের ভ'য়ও দূর হবে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, যেহেতু কথা বলার জন্য সবথেকে বেশই কন্ঠস্বরের ব্যবহার করা হয়। তার ফলে স্বরযন্ত্রে ঠাণ্ডা হাওয়ার প্রভাব পড়ে বেশি। তাতেই হঠাৎ করে সর্দি, কাশি ও শেষে ঠাণ্ডা লেগে বসে যায় গলার স্বর কিংবা গলাব্যথা হয়।

> আদা, মধু, পাতি লেবু সাধারণ সব বাড়িতেই থাকে। ফলে হরেকরকমের এই উপাদানগুলো দিয়ে চা পান বেশ উপকারী হয়। এতে যেমন গলার উপশম হবে তেমনই রক্ষা পাবেন ঠাণ্ডার হাত থেকেও।

> আদা দেয়া চা খেতে পারেন বারে বারে। তাতে গলার উপশম ও হবে, সঙ্গে বাড়াবে রোগ প্রতিরোধের শক্তিও।

> অনেক সময় মধু দিয়ে আদা কুচি মুখে রাখলেও মিলবে সুফল। তাতেও দূর হবে গলার সমস্যা।

> গলার স্বরকে সুন্দর রাখতে হালকা উষ্ণ জলে গারগেল ও করতে পারেন। তাতে গলার স্বর ঠিক রাখার পাশাপাশই দূর হবে করো'না সংক্রমণের ভ'য়ও।

> অ্যাপেল স্লাইড ভিনিগারেও থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। যা সর্দি-কাশি কমাতে সাহায্য করে। সঙ্গে প্রচুর ব্যাকটেরিয়া রোধে সাহায্য করে।

এভাবেই ঘরোয়া পদ্ধতি ব্যবহার করে সুস্থ রাখু'ন নিজেকে। তাতেই মিলবে সুফল।

Back to top button